Share to Social network.
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বগুড়ার শিবগঞ্জে জ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে মাসুদ রানা (৪৫) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। চিকিৎসক তার এই মৃত্যুকে করোনাভাইরাস সন্দেহ করছেন।

শনিবার সকাল ১০টায় তার মৃত্যু হয়।

এ ঘটনার পর এলাকার ১৫টি বাড়ি লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। মৃতদেহ থেকে নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় পাঠানো হচ্ছে বলে জানায় স্বাস্থ্য বিভাগ।

জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্র জানায়, মাসুদ রানা ঢাকার কাশিম বাজারে ব্যবসা করতেন। তার স্ত্রী চাকরির সুবাদে শিবগঞ্জ উপজেলায় শিশু ছেলেকে নিয়ে ভাড়া বাসায় বাস করতেন।

মাসুদ রানা ঢাকায় অবস্থানকালে গত ২৪ মার্চ থেকে জ্বর, সর্দি-কাশি ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। এ অবস্থায় শুক্রবার তিনি শিবগঞ্জে স্ত্রীর বাসায় চলে আসেন। সন্ধ্যার পর তিনি বেশি অসুস্থ হয়ে পড়লে স্থানীয় পল্লী চিকিৎসকের কাছ থেকে ওষুধ কিনে সেবন করেন। ভোরে তিনি মারা যান।

মাসুদ রানার মৃত্যুর পর তার স্ত্রী করোনাভাইরাস সংক্রান্ত হটলাইনে ফোন করে ডা. শফিক আমিন কাজলকে বিষয়টি জানান।

এরপর শিবগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. মোরতজা আব্দুল হাই শামীম শনিবার সকাল ১০টায় ঘটনাস্থলে পৌঁছে যুবককে মৃত ঘোষণা করেন।

বগুড়া মোহাম্মদ আলী হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. শফিক আমিন কাজল বলেন, আমরা ইতিমধ্যে ঢাকায় কথা বলেছি। মৃতদেহ থেকে নমুনা হিসেবে লালা সংগ্রহ করে আইইডিসিআর-এ পাঠানো হবে।

শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আলমগীর কবীর জানান, ওই বাড়িসহ পার্শ্ববর্তী ১৫টি বাড়িকে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। সেখানে একজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট অবস্থান করছেন।