বাইরে গেলে পুলিশ মারে, ঘরে ক্ষুধার জালায় মরি, বাসার মালিক ভাড়ার জন্য গালাগালি করে

Share to Social network.
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

করোনার কারনে লকডাউন পুরো দেশ। বন্ধ করা হয়েছে সরকারী বে-সরকারী অফিসগুলো। ১১ এপ্রিল পর্যন্ত ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে সন অফিস। সবাইকে বাইরে বের হতে নিষেধ করা হয়েছে। দেশের এই সময়ে সবচেয়ে বিপাকে পড়েছে শহরের নিম্ন আয়ের মানুষ। যাদের দিন এনে দিন খেতে হয়, তারা এখন বেকার।

বুধবার খিলগাঁও রেলওয়ে এলাকার বস্তিতে সরজমিনে গিয়ে তাদের দুর্ভোগ দেখা যায়। কয়েকজনের সাথে কথা বলে জানা যায়, তারা খুব খারাপ দিন পাড় করছে। একজন বলেন, রাস্তায় গেলে পুলিশ মারে, পেট তো এসব বুঝেনা। পেট লকডাউন বোঝে না। পেট চায় খাবার।

এক রিকশাচালক বলেন, ‘আমরা রিকশা নিয়ে বের হলেই পুলিশ মারে, বাড়িতে গেলে বাড়ির মালিক বাড়িভাড়ার জন্য গালাগালি করে। আমরা এখন কোন দিকে যাব? সরকার কি আমাদের আমাদের দেখে না? আমরা এখন কী করে খাব?’ এ রিকশাচালক আরও জানান, ‘ভাড়া দিতে পারলে না পারায় বাড়ির মালিক ঘর থেকে মালামাল ফেলে দেয়। সরকার তো আমাদের বাড়িভাড়ার ব্যাবস্থা করতে পারে। আমরা যাব কোথায়।’

গতকাল সারাদিনে একটা বিস্কুট ও পানি খেয়ে দিন পাড় করেছেন এক বৃদ্ধা। সাহায্য পাওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি জানান, ‘অনেক সময় সাহায্য দেওয়ার কথা বলে। কিন্তু লাইন ধরেও সাহায্য পাই না।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *