ভাংগায় মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে ২ ভাইকে কুপিয়ে হত্যা

Share to Social network.
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মোঃ রবিউল ইসলাম, ভাংগা- ফরিদপুর প্রতিনিধি:
ফরিদপুরের ভাংগা উপজেলার নুরুল্যাগঞ্জ ইউনিয়নের হাওলী গঙ্গাধরদী
গ্রামে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে আপোন ২ ভাইকে কুপিয়ে
হত্যা করে প্রতিপক্ষরা। এ ঘটনায় কম পক্ষে ১০ জন আহত হয়েছে।
আজ সোমবার সকালে এ ঘটনা ঘটে। নিহত শামীম ও রাকিব ঐ
গ্রামের গিয়াস উদ্দিন মাতুব্বরের ছেলে। এলাকাবাসী জানায় শামীম ও
রাকিব গ্রামের বিলে মাছ ধরার জাল ফেলাতে যায়। পরে তারা গিয়ে দেখে
একই গ্রামের পাশের বাড়ীর সাদ্দাক মাতুব্বর ও তার ছেলে কামাল, ছালাম,
আবজাল, জামাল মিলে শামীম ও রাকিবের জাল বিল থেকে উঠিয়ে ফেলে
দেয়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে উভয় পক্ষের মধ্যে রক্তক্ষয়ি সংঘর্ষ ঘটে। সকালে
সাদ্দাক মাতুব্বরের লোকজন দেশীয় অত্র নিয়ে গিয়াস মাতুব্বরের
বাড়ীতে গিয়ে হামলা চালায়। এ সময় কিছু বুঝে উঠার আগেই
রাকিব মাতুব্বর ও তার বড় ভাই শামীম মাতুব্বরকে সাদ্দাক মাতুব্বরের
ছেলেরা এলোপাথারি কুপিয়ে চলে যায়। স্থানীয় লোকজন তাদের উদ্ধার করে
ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথেই তারা দুই ভাই মারা
যায়। নিহতের বাবা গিয়াস মাতুব্বর জানান মাছ ধরা নিয়ে ওরা আমার
দুইটা ছেলেকে আমারি সামনে কুপিয়ে হত্যা করেছে। আমি আমার
দুই ছেলের হত্যার বিচার চাই।
এ বিষয়ে ভাংগা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শফিকুর রহমান জানায়
সংঘর্ষের খবর পেয়ে ভাংগা থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি
নিয়ন্ত্রনে আনে। এ সময় হত্যার সাথে জড়িত থাকার সন্দেহে সাদ্দাক
মাতুব্বর, ছালাম মাতুব্বর ও আবজাল মাতুব্বর কে আটক করে পুলিশ। লাশ
উদ্ধার করে ফরিদপুর মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে ভাংগা থানায়
একটি হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *