মুলাদীতে ১২ ঘন্টার মধ্যে হত্যা মামলার প্রধান আসামী গ্রেফতার

Share to Social network.
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ

মুলাদী থানার চাঞ্চল্যকর হত্যা মামলার প্রধান আসামী যুবরাজ খলিফা(২২) পিতা-শাহ আলম খলিফা, সাং-উত্তর বালিয়াতলী, থানা-মুলাদী, জেলা-বরিশালকে মামলা দায়েরের ১২ ঘন্টার মধ্যে গ্রেফতার করা হয়। মুলাদী থানাধীন উত্তর বালিয়াতলী গ্রামের মোঃ আলতাফ হোসেন বেপারী(৭৫) পিতা-মৃত আঃ মাজেদ বেপারী’র ছেলে ইমরান হোসেন বেপারী(২৭) এর গলাকাটা লাশ গত ইং-৩০/০৪/২০২০ তারিখ সকাল ০৬.৩০ ঘটিকার সময় মুলাদী থানাধীন দক্ষিন বালিয়াতলী সাকিনস্থ মোঃ লোকমান খান(৬০) পিং-মৃত আঃ জব্বার খান এর বসত বাড়ী হইতে অনুঃ ৩০ গজ পশ্চিম পাশে মোঃ সাহাবুল(১৩) পিং-মৃত কাইয়ুম প্যাদার চাষকৃত জমির মধ্যে থেকে উদ্ধার করা হয়। এই সংক্রান্তে আলতাফ হোসেন বেপারী বাদী হয়ে ছেলের হত্যার বিষয়ে অজ্ঞাতনামা আসামীদের বিরুদ্ধে এজাহারের প্রেক্ষিতে মুলাদী থানার মামলা নং-২২ তারিখ-৩০/০৪/২০২০খ্রিঃ ধারা-৩০২/৩৪ পেনাল কোড রুজু করা হয়। মামলা দায়ের করার পর পরপরই মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা জনাব মোঃ ফয়েজ উদ্দিন, অফিসার ইনচার্জ, মুলাদী থানা, বরিশাল বিশ্বস্ত গোয়েন্দা এবং তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে ১২ ঘন্টার মধ্যে মামলার ঘটনার মূল রহস্য উদঘাটন পূর্বক ইং-০১/০৫/২০২০ তারিখ সকাল ১০.৩০ ঘটিকার সময় মুলাদী থানাধীন চরপদ্মা সাকিনস্থ শরীয়তপুর জেলার গোসাইরহাট থানার সীমান্তবর্তী এলাকায় গ্রেফতারী অভিযান পরিচালনা কারিয়া আত্মগোপনে থাকা হত্যাকারী যুবরাজ খলিফা(২২) কে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত আসামী যুবরাজ খলিফা’র স্বীকারোক্তি মোতাবেক অভিযান পরিচালনা করিয়া হত্যায় ব্যবহৃত ধারালো ছোরা, হত্যাকারী যুবরাজ খলিফা’র পরিহিত ফুলহাতা গেঞ্জি, রক্ত মাখা লুঙ্গি এবং মৃত ইমরানের ব্যবহৃত মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *