হিজলায় স্মরণকালের বর্ণাঢ্য আনন্দ শোভাযাত্রায় এমপি পংকজ নাথ

0
39

কাজী মঈনুল আলম, হিজলা (বরিশাল) প্রতিনিধি ঃ

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ই মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ ইউনেস্কোর মেমোরি অব দ্যা ওয়াল্ড ইন্টারন্যাশনাল রেজিষ্টারে অন্তর্ভূক্তির মাধ্যমে বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্যের স্বীকৃতি লাভের অসামান্য অর্জনকে, হিজলা উপজেলায় “বর্ণাঢ্য আনন্দ শোভাযাত্রা”র মাধ্যমে উদযাপিত হয়েছে, যার আয়োজনে ছিল উপজেলা প্রশাসন হিজলা। দিবসটি উপলক্ষ্যে, ২৫ নভেম্বর দুপুর ১২ টায়, উপজেলা কেন্দ্রিয় শহীদ মিনারে বর্ণাঢ্য আনন্দ শোভাযাত্রার শুরুর আগে, উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে জাতির জনকের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন, হিজলা মেহেন্দীগঞ্জ আসনের সংসদ সদস্য এবং বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগ কেন্দ্রিয় কমিটির সাধারন সম্পাদক পংকজ নাথ। উপজেলা চেয়ারম্যান সুলতান মহমুদ টিপু, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু জাফর রাশেদ, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান এনায়েত হোসেন, মহসেনা বেগম, হিজলা গৌরবদী ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম মিলন, গুয়াবাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান অধ্যাপক শাহজাহান তালুকদার, বড়জালিয়া ইউপি চেয়ারম্যান, পন্ডিত শাহবুদ্দিন আহম্মেদ, হরিনাথপুর ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আঃ লতিফ খান, মেমানিয়া ইউপি চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিন হাওলাদার, হিজলা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এসএম মাকসুদুর রহমান, বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা বৃন্দ, মুক্তিযোদ্ধাবৃন্দ, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী ও শিক্ষক মন্ডলী, সাংবাদিক সহ আওয়ামীলীগ ও এর সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও স্থানীয় গন্য-মান্য ব্যক্তি বর্গ। বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে আরো শ্রদ্ধা নিবেদন করেন, উপজেলা প্রশাসন, মুক্তিযোদ্ধা, উপজেলা আওয়ামীলীগ ও এর অংঙ্গ সংগঠন সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে প্রধান অতিথি পংকজ নাথ তার বক্তব্যে বলেন, বিশ্বের অন্যান্য নেতারা লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন কিন্তু আমাদের জাতির পিতা কোন লিখিত বক্তব্য পাঠ করেননি। ৭ই মার্চ ১৯৭১ সালে রেসকোর্স ময়দানে প্রায় ১০ লক্ষ জনগনের মাঝে তিনি যে বক্তব্য দিয়েছেন, সে বক্তব্যে আমাদের স্বাধীনতার ঘোষনা এসেছে, সাথে সাথে স্বাধীনতাও এসেছে । ৪৬ বছর পরে বিশ্বের দরবারে স্বীকৃতি লাভ করলো বঙ্গবন্ধুর সেই ঐতিহাসিক ভাষন। মাত্র ১৮ মিনিটের বক্তব্যে মহাকাব্য রচনা করলেন বঙ্গবন্ধু।

25-11-2017

তার বক্তব্য শেষে একটি বর্ণাঢ্য আনন্দ শোভা যাত্রা উপজেলা কেন্দ্রিয় শহীদ মিনারে সামনে থেকে শুরু হয়ে উপজেলার বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ন সড়ক প্রদক্ষিন শেষে, উপজেলা বাসস্ট্যান্ডে এসে শেষ হয়। এর পরে বাসস্ট্যান্ড থেকে একটি মটর গাড়ি শোভাযাত্রা পুরাতন হিজলা, হরিনাথপুর হয়ে চাঁদেরহাটে (কিলেরহাট) প্রতিষ্ঠিত বঙ্গবন্ধু মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মাঠে গিয়ে শেষ হয়। উক্ত শোভা যাত্রায় উপস্থিত ছিলেন, একই দিনে সন্ধায় উপজেলায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও চলচিত্র প্রদর্শীত হবে।

LEAVE A REPLY