সেমিতে ওঠাই আর্জেন্টিনার জন্য ইতিবাচক

0
6

বিশ্বকাপ এখনো শুরু হয়নি। কিন্তু লিওনেল মেসির হাতে শিরোপা দেখছেন অনেকেই। আর্জেন্টিনা কোচ হোর্হে সাম্পাওলিও বলে দিয়েছেন দ্বিতীয় হওয়াও নাকি আর্জেন্টিনার জন্য ব্যর্থতা। অর্থাৎ বিশ্বকাপে বরাবরের মতো এবারও শিরোপাজয়ই লক্ষ্য আর্জেন্টিনার। কথাটা ভুল আবার ঠিকও। কেননা, খোদ আর্জেন্টিনা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের (এএফএ) সভাপতি ক্লদিও তাপিয়া বলছেন, লক্ষ্যটা আসলে সেমিফাইনাল!

অবাক হওয়াই স্বাভাবিক। অনেকেই মনে করছেন রাশিয়াতেই ক্যারিয়ারের শেষ বিশ্বকাপটা খেলবেন মেসি। তাঁর মতো ফুটবলার যে বিশ্বকাপে দেশের জন্য নিজের সর্বস্ব নিংড়ে দেবেন সে কথা বলাই বাহুল্য। আর সেটা যদি হয় ক্যারিয়ারের শেষ বিশ্বকাপ তাহলে তো কথাই নেই। ৩০ বছর বয়সী এই মেসিকে সামলে রাখতে হিমশিমই খেতে হবে তাঁর প্রতিপক্ষদের। তা ছাড়া বিশ্বকাপটা জিতে বড় টুর্নামেন্টে দেশের বহুদিনের শিরোপা খরা কাটানোর স্বপ্ন দেখছেন মেসির সতীর্থরাও।

কিন্তু ক্লদিও তাপিয়া স্বপ্ন নয়, হাঁটছেন বাস্তবের পথে। তাঁর মতে, সেমিফাইনালে ওঠাই আর্জেন্টিনার জন্য বাস্তবসম্মত ও ‘ইতিবাচক’ লক্ষ্য। ২০১৪ বিশ্বকাপের রানার্সআপ দলটি এবার বাছাইপর্বে মোটেও ভালো করতে পারেনি। অনেকটা খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে তাঁরা উঠে এসেছে বিশ্বকাপের চূড়ান্তপর্বে। আর তাই আর্জেন্টিনাকে নিয়ে এবার অনেক বিশ্লেষকই ধোঁয়াশার মধ্যে আছেন। কারও কাছে দলটি ফেবারিট আবার কারও কাছে নয়।

তাপিয়া অবশ্য এই পথের কোনোটাই বেছে নেননি। দল যেন অনর্থক প্রত্যাশার চাপে ভেঙে না পড়ে—সম্ভবত এটা ভেবেই মেসিদের ওপর তিনি শিরোপা জয়ের চাপ সৃষ্টি করেননি। আর্জেন্টিনার সংবাদমাধ্যম ‘টিওয়াইসি স্পোর্টস’কে তাপিয়া বলেন, ‘সেরা চারে থাকতে পারলে সেটা হবে ইতিবাচক লক্ষ্য।’ এএফএ সভাপতি মেসির ভূয়সী প্রশংসাও করেছেন, ‘আর্জেন্টাইন ফুটবলকে সে অনেক দিচ্ছে। এএফএ-র বিকাশ ঘটছে কারণ আমাদের রয়েছে দুনিয়ার সেরা ফুটবলার।’

LEAVE A REPLY