এই নির্যাতনের শেষ কোথায়, আর কত হয়রানী হলে পাবে সুবিচার?

0
120

নিজস্ব সংবাদাতা:
রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে আপন ভাই কর্তৃক প্রহসনের স্বীকার হচ্ছেন দুই বোন সুলতানা রাজিয়া ও দিলরুবা সুলতানা। ইতোমধ্যে অসংখ্যবার প্রশা্সনের স্বরানাপন্ন হলেও এখনও পায়নি সুবিচার। ঘটনাসুত্রে জানাযায়- সুলতানা রাজিয়া ও ছোট বোন দিলরুবা সুলতানা, উভয় পিতা- মৃত. সানাউল্লাহ, ঠিকানা- ৩৬/১, পশ্চিম যাত্রাবাড়ী, ঢাকা-১২০৪ দীর্ঘদিন যাবত ওয়ারিশকৃত সম্পত্তি বন্টন হওয়ার পরেও জোড়পুর্বক দখল করার পায়তারা করিতিছে। দুই বোনকে উক্ত সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত করার জন্য বিভিন্নভাবে হয়রানী করে যাচ্ছে। এছাড়া সুলতানা রাজিয়া এর স্বামী মো: শাহীনুল ইসলামকে একাধিক মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানী করেছে এবং বিজ্ঞ আদালত কর্তৃক উক্ত মিথ্যা মামলা খারিজ করে দেয়। ঘটনার বিষয়ে সুলতানা রাজিয়া একাধিকবার প্রশাসনের শরনাপন্ন হয়েও আইনগত কোন সুবিচার পাচ্ছেন না বলে জানান। গত ২৫/০৩/২০১৮ইং তারিখে আপন ভাই ১. মো. সালেহ, ২. মো. সালেম, ৩. মো. সাফাউল্লাহ বাবর সহ ১০/১২ জন ডাকাত প্রকৃতির লোক নিয়ে বোনদের বসবাসকৃত ফ্লাটে বন্টননামার মাধ্যমে প্রাপ্য অংশ থেকে উচ্ছেদ করার জন্য বাড়ীর সমস্ত মালামাল লুটপাট করে. বলে জানা যায়। ঘটনার বিষয়ে যাত্রাবাড়ী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করা হলেও সুবিচার মেলেনি। এবিষয়ে সুলাতান রাজিয়া বাদী হয়ে যাত্রবাড়ী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে। মামলা নং ১০৮(৩)১৮, তাং ২৫/০৩/২০১৮ইং । এবিষয়ে যাত্রাবাড়ী থানা পুলিশ এখনও লুটকৃত মালামাল উদ্ধার করতে পারেনি। মামলার বাদী সুলতানা রাজিয়া প্রতিনিধিকে জানান- পুলিশের এক উর্দ্ধোতন কর্মকর্তা এবিষয়ে বিবাদীগণকে সরাসরি হস্তক্ষেপ করে, তাই বিবাদীরা কাউকে পরোয়া করেনা। আমি বর্তমানে যেখানে বসবাস করছি বিবাদীরা বাসার গ্যাস এবং পানির লাইন জোড়পুর্বক কেটে দেয়। এবিষয়ে সংবাদকর্মীরা ঘটনাস্থলে এসে ঘটনার সত্যতা পেয়ে পত্রিকায়ও প্রকাশ করে বলে জানান তিনি। বর্তমানে দুই বোন মানবেতর জীবন যাপন করছেন। এবিষয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এবং প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্ট সকলের সু-দৃষ্টি আকর্শন করছেন ভুক্তভোগী সুলতানা রাজিয়া ও দিলরুবা সুলতানা।

LEAVE A REPLY