হেলিকপ্টার ব্যবহার করে সমালোচনার ‍মুখে ইমরান খান

0
13
 ক্ষমতায় আসার পর সরকারি ব্যয় কমানোর জন্য একের পর এক উদ্যোগ নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অতিরিক্ত গাড়ি, বিমানবন্দরের ভিআইপি নিরাপত্তা কাটছাঁট এবং নিজে বিলাসবহুল জীবন যাপন করবেন না বলে ঘোষণা দেন তিনি। কিন্তু নিজেই হেলিকপ্টারে চড়ে অফিস করার পর ইমরানের এসব নীতিবাক্য নিয়ে প্রশ্ন উঠছে।

এরই মধ্যে পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী ওসমান বাজদার তার পরিবার নিয়ে উড়োজাহাজে করে ঘোরার ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। প্রশ্ন উঠেছে, ইমরান খান সরকারি ব্যয় কমানোর জন্য যেসব পদক্ষেপ নিচ্ছেন অন্যরা তাকে তেমনভাবে সাহায্য করছেন না। ওসমান বাজদার তার বন্ধুর প্রয়াত বাবার স্মরণ অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গিয়ে অফিশিয়াল হেলিকপ্টার ব্যবহার করার ছবি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তীব্র সমালোচনা হচ্ছে।

ব্যাপক সমালোচনার পর ওসমান বাজদারের পক্ষে ওকালতি করেছেন পাঞ্জাবের তথ্যমন্ত্রী ফাইজুল হাসান। তিনি দাবি করেন, মুখ্যমন্ত্রীর হেলিকপ্টার ব্যবহার কৃচ্ছ্রসাধন কর্মসূচির সঙ্গে সাংঘর্ষিক নয়। এটি মুখ্যমন্ত্রীর বিশেষ অধিকার।

ইমরান খান ও তার স্ত্রী বুশরা মানেকা তাদের ব্যক্তিগত বানিগালা হাউস থেকে প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে যাতায়াতের জন্য অফিশিয়াল হেলিকপ্টার ব্যবহার করছেন। এ নিয়ে সমালোচনার প্রেক্ষাপটে তথ্যমন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরী বলেন, ‘হেলিকপ্টারে তিন মিনিটের দূরত্বে যাওয়া নিয়ে যারা সমালোচনা করছেন তারা জেনে রাখুন, গাড়ি ব্যবহার করলে পাঁচ থেকে সাতটি গাড়ির প্রয়োজন হতো। আরও নিরাপত্তা দিতে হতো এবং সড়কে যানজটের সৃষ্টি হতো।’

ref-(প্রিয়.কম)

LEAVE A REPLY